voice typing,google voice typing,google docs voice typing,google docs,google voice recognition,google docs voice,google doc voice typing,google voice typing tutorial,voice,google voice,google,voice typing in google docs,google drive,google docs (software),google voice typing commands,google voice to text,google voice (software),voice typing google docs,google drive voice typing,typing,google apps
কথা লেখায় পরিণত করুন : গুগল ড্রাইভ ভয়েস টাইপিং ব্যবহার করে!! Google Drive uses voice typing


কথা লেখায় পরিণত করুন : গুগল ড্রাইভ ভয়েস টাইপিং ব্যবহার করে!! Google Drive uses voice typing


অফিস-আদালতে কিংবা নিজ প্রয়োজনে বিভিন্ন সময় আমাদের কম্পিউটারে টাইপ করতে হয়।  যখন আমাদের হাতে অনেক লেখালেখির কাজ থাকে তখন কি-বোর্ড চাপতে চাপতে আঙ্গুল ব্যাথা হয়ে যায়। কিংবা যাদের টাইপিং স্পীড কম তাদের তো মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ে! তো এই কষ্ট থেকে বাঁচাতে ২০১২ সালে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগল নিয়ে আসে ‘গুগল ভয়েস সার্চ’ নামে অসাধারণ একটি ফিচার। যার মাধ্যমে মুখে উচ্চারণ করা কথাগুলো হুবহু লেখায় পরিণত হয়ে কম্পিউটার বা মোবাইল ফোনের স্ক্রীনে ভেসে উঠে। ফিচারটি চালু হওয়ার পর দারুন জনপ্রিয়তা পায়। প্রথমদিকে শুধুমাত্র ইংরেজী ভাষা সনাক্ত করতে পারতো এই ভয়েস সার্চ প্রোগ্রাম। পরবর্তীতে এতে অন্যান্য ভাষাও যোগ করা হয়। তাছাড়া উইন্ডোস অপারেটিং সিস্টেমে ‘ভয়েস কন্ট্রোল’ ফাংশন ব্যবহার করে মুখের আওয়াজ দ্বারা কম্পিউটারের যাবতীয় কার্যক্রম কন্ট্রোল করা যায়। 

যাইহোক, এগুলো অনেক পুরনো কথা। নতুন করে বলার কিছু নেই। আমরা বেশিরভাগই এসবের সাথে অনেক আগেই পরিচিত হয়ে গেছি। কিন্তু যারা এখন অবদি জানেন না, তাদের উদ্দেশ্য করে আজকে আমার এই লেখা।
আজকে আমরা দেখব গুগল ড্রাইভ ব্যবহার করে কিভাবে ভয়েস টাইপিং করা যায়। খুবই সহজ একটা কাজ। যারা মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে প্রতিনিয়ত টাইপিংয়ের কাজ করেন তাদের জন্য তো আরও সহজ বিষয়টা। তো চলুন দেখে নেয়া যাক। 


যা যা প্রয়োজন :
  • আপনি যদি ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করেন তবে প্রথমেই আপনার প্রয়োজন হবে মাইক্রোফোনের সুবিধাযুক্ত একটি হেডফোন। আর যদি ল্যাপটপ চালান তবে  হেডফোন না হলেও চলবে। কারণ এখনকার ল্যাপটপগুলোতে মাইক্রোফোন সুবিধা দেয়াই থাকে। 

যেভাবে করবেন :মজিলা ফায়ারফক্স কিংবা গুগল ক্রোম থেকে প্রথমেই আপনার জিমেইলে প্রবেশ করুন। 

জিমেইলে প্রবেশ করার পর উপরে ডান দিকে লক্ষ্য করুন নীচের চিত্রের মতো কতগুলো ছোট ছোট বক্স সংবলিত একটি আইকন রয়েছে। সেটিতে কিক্ল করুন। 

এটিতে কিক্ল করলে নীচের চিত্রের মতো গুগলের অন্যান্য সেবাসমূহের তালিকা প্রদর্শন হবে।
এখান থেকে  Drive লেখাটিতে কিক্ল করলে আপনাকে গুগল ড্রাইভে নিয়ে যাবে।

গুগল ড্রাইভ ওপেন হওয়ার পর বাম পাশের সবার উপরে New লেখাটিতে ক্লিক করলে একটি লিষ্ট চলে আসবে। 

 সেখান থেকে Google Docs লেখাটিতে কিক্ল করুন। আমাদের মূল কাজটা এই ‘গুগল ডকস’ ব্যবহার করেই করবো।


গুগল ডক ওপেন হলে উপরের মেনুবার থেকে Tools-এ ক্লিক করলে একটি লিষ্ট দেখাবে।


সেখান থেকে Voice Typing লেখাটিতে ক্লিক করুন।
লক্ষ্য করবেন ভয়েস সার্চ-এর একটি আইকন চলে আসছে।


এখন এটিতে ক্লিক করে আপনি মুখে যা-ই উচ্চারণ করবেন বা বলবেন কম্পিউটার সেগুলিকে টেক্সট বা লেখায় পরিণত করে  ডকুমেন্টে প্রদর্শন করবে। অর্থাৎ আপনার কথাগুলো সব হুবহু লেখায় পরিণত হতে থাকবে।

তো বন্ধুরা, যারা নুতন এই টিপসটি জানলেন তারা এখনি একবার ট্রাই করে দেখুন। আশা করি ভালো লাগবে। আর সবাইকে ধন্যবাদ পোষ্টটি পড়ার জন্য।  

আমার আগের পোষ্টগুলো -->>