Consistent strikes across all of YouTube, Youtube নতুন কমিউনিটি গাইডলাইন আপডেট - ২০১৯। প্রত্যেক Youtuber জন্য দেখা প্রয়োজন
YouTube নতুন কমিউনিটি গাইডলাইন আপডেট - ২০১৯। প্রত্যেক You tuber জন্য দেখা প্রয়োজন

YouTube নতুন কমিউনিটি গাইডলাইন আপডেট - ২০১৯। প্রত্যেক You tuber জন্য দেখা প্রয়োজন

ইউটিউব সম্প্রতি তাদের নির্দেশিকাগুলির নতুন একটি আপডেট নিয়ে এসেছে।

Consistent strikes across all of YouTube

ইউটিউব কমিউনিটি গাইডলাইন এর নতুন রুলস তৈরি করেছে

  • কেউ যদি প্রথমবার কমিউনিটি গাইডলাইন ভঙ্গ করে ভিডিও তৈরি করে তাহলে তার চ্যানেল এ ৭ দিনের জন্য ভিডিও আপলোড ও লাইভ স্ট্রিমিং বিন্ধ করা হবে।
  • এবং ৯০ দিন টাইম দেওয়া হবে।
  • এই ৯০ দিনের ভিতর যদি কেউ দ্বিতীয় বারের মতো কেউ যদি গাইডলাইন ভঙ্গ করে ভিডিও তৈরি তাহলে তার চ্যানেলে ১৪ দিনের জন্য ভিডিও আপলোড ও লাইভ স্ট্রিমিং বন্ধ করে দেওয়া হবে। তারপর আবার ৯০ দিন টাইম দেওয়া হবে।
  • এই ৯০ দিনের ভিতর কেউ যদি আবার মানে তৃতীয় বারের মতো কমিউনিটি গাইডলাইন না মেনে ভিডিও তৈরি করে তাহলে ইউটিউব থেকে তার চ্যানেল বন্ধ করে দেওয়া হবে বা টার্মিনেট করা হবে।

ইউটিউব বলছে “আমরা চাচ্ছি ইউটিউব কে একটি সুন্দর ও ভালো সোশ্যাল ভিডিও শেয়ারিং মাধ্যম করতে। যারা ইউটিউব এর জন্য ভিডিও তৈরী করেন তাদের মধ্যে অনেক আছেন যারা ইউটিউব এর কমিউনিটি গাইডলাইন সম্পর্কে অবগত নন। মূলত আমাদের প্রতিটি আপডেটই আমরা যারা ইউটিউব এর গাইডলাইন সম্পর্কে অবগত না তাদের জন্য করে থাকি”।
ইউটিউব বলেছে যারা ভিডিও তৈরী করে তাদের মধ্যে ৯৮% তাদের নির্দেশনাগুলো ভাঙ্গে না। কিন্তু বাকি ২% ভিডিও ক্রিয়েটর ইউটিউব রুলস ফোলো না করে ভিডিও তৈরী করে। তাদের উদ্দেশ্য সম্পূর্ণ ১০০% মানুষ যেন তাদের গাইডলাইন সম্পর্কে অবগত থাকে।
এজন্য তারা নতুন রুলস করেছে, তিনটি স্ট্রাইক সিস্টেম ও ইমেইল নোটিফিকেশন। যাতে প্রত্যেক ইউটিউবার গুরুতর সমস্যার মুখোমুখি হওয়ার আগে কি ভুল করেছেন তা বুঝতে পারে।
এবং এটি প্রমাণিত, যারা প্রথম কমিউনিটি গাইডলাইন স্ট্রাইক পায় তাদের মধ্যে ৯৪% ভিডিও ক্রিয়েটর দ্বিতীয় স্ট্রাইক পায় না।
ইউটিউব তাদের নীতিমালা সবাইকে জানানোর আরো বড় সুযোগ করে দিতে চাচ্ছে, তাই ২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে প্রত্যেক চ্যানেল কেউ যদি কোন কমিউনিটি গাইডলাইন ভঙ্গ করে তাহলে তাকে সরাসরি স্ট্রাইক না দিয়ে ইমেইল এর মাধ্যমে জানানো হবে।
যাকে ইউটিউব দাবি করছে ওয়ার্নিং! এই ওয়ার্নিং শুধুমাত্র একবারই দেওয়া হবে।
যা পূর্বে কেউ যদি গাইডলাইন ভঙ্গ করত তাহলে সরাসরি তার চ্যানেল এ স্ট্রাইক চলে যেত। এখন আর তা হচ্ছে না।
ইউটিউব বলছে এই ওয়ার্নিং মূলত সবাইকে তাদের গাইডলাইন সম্পর্কে বা সবাই জানতে সময় লাগে তাই সরাসরি স্ট্রাই না দিয়ে ওয়ার্নিং দেওয়া হবে।
ইউটিউবে যারা কমিউনিটি গাইডলাইন ভঙ্গ করে তাদের জন্য শাস্তির ব্যবস্থা আছে এবং শাস্থি পাচ্ছে।
ইউটিউব এর কমিউনিটি গাইডলাইন কভার করে সব ভিডিগুলিকে যেমন স্টরি, কাস্টম থাম্বনেল বা ভিডিওর ডেসক্রিপশন এ থাকা বিভিন্ন ওয়েবসাইট এর লিংক।
আপনাকে ইউটিউব সর্বোচ্চ তিনবার সুযোগ দেবে। এর বেশি গাইডলাইন ভঙ্গ করলে আপনার চ্যানেল ইউটিউব থেকে বন্ধ করে দেওয়া হবে।
তাহলে বুঝেন ইউটিউব কত চান্স দিচ্ছে। আপনি একটি মাধ্যম ব্যবহার করে আর্ন করবেন আর সেই মাধ্যমের রুল ফোলো করবেন না এটা তো হয় না।
আমাদের উইজবিডির রুলস ভঙ্গ করে কেউ যদি পোস্ট করে তাহলে আমরা প্রথমে তাকে একবার ওয়ার্নিং দেই এবং দ্বিতীয় বার করলে সরাসরি উইজার্ডশিপ বাতিল করে দেই।
যে জায়গায় উইজবিডির মতো ছোটো ওয়েবসাইট ১ বারের বেশি চান্স দিচ্ছে না সেখানে ইউটিউব এর মতো বড় (বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ওয়েবসাইট) প্লাটফর্ম আপনাকে ৩ বার চান্স দিচ্ছে।
বাংলাদেশের হাজারও মানুষ এখন ইউটিউব কে নিজেদের স্মার্ট ক্যারিয়ার নিসেবে গ্রহণ করেছে। সেখানে শুধু শুধু কমিউনিটি গাইডলাইন এর জন্য যদি আপনার চ্যানেল বন্ধ হয়ে যায় তাহলে এর চেয়ে দুঃখের বিষয় আর কি হতে পারে?